আইডেনটিটির ইস্তেমাল

মনে করুন বাংলাদেশের এক‌ই গ্রাম থেকে দুজন মুসলমান ভারতে ঢুকলো। একজন গেলো আসামের অহমীয়া প্রধান জোরহাটে, অন্যজন সেই আসামের‌ই বাঙালি অধ্যুষিত হাইলাকান্দিতে।
প্রথম জন নিজের পরিচয় দেবে – আমি একজন অহমীয়া। ভাঙাফাটা অসমীয়া ছাড়া কখনোই সে বাংলায় কথা বলবে না। বাঙালি দেখলে বলবে কেলা বঙ্গালি। সে তাম্বুল পান খাবে। বিহুতে আনন্দ করবে। তার বাংলাদেশী পরিচয় লুকিয়ে তখন সে একজন ভূমিপুত্র অহমীয়া।


দ্বিতীয় জন কাঁচা কাছাড়ি ভাষায় কথা বলবে।  জনগণনার সময় নিজের পরিচয় নথিভুক্ত করাবে বাঙালি হিসেবে। সে তাম্বুলের পরিবর্তে সাদার গুড়া(তামাক পাতার গুড়ো) দিয়ে পান খাবে। বিহুর পরিবর্তে সে গাইবে – কে যাস্ রে ভাটিগাঙ্ বাইয়া….., সে নাচবে ধামাইল। সে একজন আদ্যোপান্ত বাঙালি হয়ে প্রতিদিন অবাঙালিদের বাপ বাপান্ত করবে ।


আসলে তারা অসমিয়াও নয়, বাঙালিও নয়। পুরোটাই আইডেনটিটির ইস্তেমাল। এই গেমপ্ল্যানটা বুঝতে হবে। না বুঝলেই আবার রিফিউজি।